Home » Government Schemes » Rupashree Prakalpa – Forms and Application Procedures
Rupashree Prakalpa

Rupashree Prakalpa – Forms and Application Procedures

Rupashree Prakalpa is the brainchild of West Bengal chief minister Mamata Banerjee. According to Rupashree Scheme, all girls can now get 25000 rupees for their marriage if their annual family income is not more than 150000 rupees.

Download Rupashree Scheme Application Form Here

Rupashree Scheme Guidelines 

Eligibility Criteria for Rupashree Prakalpa

To apply Rupashree Prakalpa, the applicant must have to fulfil the following eligibility guideline.

  • The age of the girl must be above 18 years at the time of her marriage to apply for the Rupashree Scheme.
  • The annual family income does not exceed Rs. 1.5 lack.
  • Applicant must be a permanent resident of West Bengal.

No, minimum educational qualifications required to apply Rupashree Prakalpa.

Require Documents for Rupashree Prakalpa

Following documents are required to apply Rupashree Prakalpa offline. These documents will attach with the Rupashree Prakalpa Application Form.

1. DOB Proof Certificate (Madhyamik Admit/Birth Certificate).

2. Complete details info of the Groom. (Name, Address, ID Proof)

3. Marriage Invitation Card or Any Other Proof.

4. Declaration copy of the Bride about her marriage.

5. Id Proof (Voter Card, Aadhaar Card).

6. Bank Account Details of the Bride.

 

Govt. of West Bengal has launched Rupashree Scheme. In this scheme one-time financial grant of Rs. 25,000/- will be given to girls above 18 years old for marriage purpose. The girl’s family income should be less than Rs. 1,50,000/- per year.

Rupashree Prakalpa

Set Budget

The state finance minister and the Chief Minister and the Chief Minister of the state Mamta Banerjee while addressing a press conference also made it very clear that the local government has already approved to allocate a set budget of Rs 1500 crore that will be used for implementation of the Rupashree Prakalpa state wide.

The state government has announced to implement the Rupashree Prakalpa with an aim to help eliminate the child marriage issues. Apart from this the government also aims to reduce the burden and cost of girl child marriage.

Read In Bengali Here.

Rupashree Prakalpa 2018 : ২০১১ সালে ক্ষমতায় এসে রাজ্যে কন্যাশ্রী প্রকল্প চালু করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাল্যবিবাহ রুখতে ও কন্যা সন্তানদের স্কুলে পাঠাতে বিশেষ সহায়ক হয়েছে এই প্রকল্প। সাফল্যের নিরিখে বিশ্বের দরবারে স্বীকৃতিও পেয়েছে কন্যাশ্রী। এবার দুঃস্থ পরিবারের মেয়েদের বিয়েতে প্রত্যক্ষ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিল রাজ্য সরকার।

৩১ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে রাজ্য বাজেটে ২০১৮-১৯ অর্থবর্ষে পশ্চিমবঙ্গের মাননীয় অর্থমন্ত্রী ,আর্থিক দুর্দশাগ্রস্ত পরিবারের প্রাপ্তবয়স্ক কন্যাদের এককালীন ২৫০০০ টাকা অনুদানের ঘোষণা করেছেন।
দেখাগেছে এই পরিবারগুলি মেয়েদের বিবাহের সময় অনেক সময়ই অতন্ত্য চড়া সুদে টাকা ধার নিতে বাধ্য হন। এই অনুদান রূপশ্রী প্রকল্প নামে দেওয়া হবে যার লক্ষ্য হলো মেয়েদের বিবাহের সময় দরিদ্র পরিবার যে আর্থিক সমস্যার সুমুক্ষীন হন তা হ্রাস করা। এই প্রকল্পের জন্য ১৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে সরকার।

রূপশ্রী প্রকল্প ২০১৮

রূপশ্রী প্রকল্পের অধীনে বিয়ের দিন ঠিক হওয়ার পর ফর্ম পূরণ করতে হবে পাত্রীকে।বিয়ের ন্যূনতম ৩০ দিন আগে আবেদন করতে হবে। আয়ের শংসাপত্র, পাত্রীর বয়সের শংসাপত্র, পাত্রের সম্পর্কে তথ্য দিয়ে আবেদন করতে হবে। এরপর তথ্য খতিয়ে দেখে তবেই দেওয়া হবে এই টাকা। ১ এপ্রিল থেকে এই প্রকল্প কার্যকর হচ্ছে বলে বৈশাখ মাসে যাঁদের বিয়ে তাঁদের পরিবার আবেদন করার সময়সীমায় ছাড় পাবে। সেই ফর্ম যাচাই করে বিয়ের ৫ দিন আগে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়বে প্রাপ্য টাকা।পরিবারের বার্ষিক আয় ১.৫ লক্ষ টাকা বা তার কম এমন পরিবারের প্রাপ্তবয়স্ক তরুণীরা বিয়ে করলে এই প্রকল্পের অধীনে এককালীন ২৫ হাজার টাকা করে পাবেন।

নারী শিশু উন্নয়ন ও সমাজ কল্যাণ দপ্তর এর মূল দায়িত্বে রয়েছে। প্রসঙ্গত, কন্যাশ্রীর প্রকল্পে অভাবনীয় সাফল্য পাওয়া গেছে। মেয়েদের স্কুলছুটের সংখ্যা অনেক কমে গেছে। নাবালিকা বিয়ের হারও কমেছে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যাচ্ছে, দারিদ্র‌্যতার কারণেই হোক বা অজ্ঞতার কারণে, কন্যাশ্রীর সাফল্যের পরেও অনেক নাবালিকার বিয়ে দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। নাবালিকা বিয়ে রুখতেই মুখ্যমন্ত্রী এই রূপশ্রী প্রকল্পের সূচনা করেন। কন্যাশ্রী প্রকল্পে যেমন মেয়েরা পড়াশোনা করলে অর্থ পাওয়া যায়, রূপশ্রীর ক্ষেত্রে ১৮ বছর বয়স হলে শুধু মেয়ের বিয়ের জন্যই এককালীন ২৫ হাজার টাকা দেওয়া হবে।শ্রমিক দের সুরক্ষা দেওয়ার জন্য এই সরকার সামাজিক সুরক্ষা যোজনা নাম আরও একটি গুরুত্তপূর্ণ প্রকল্প চালু করেছেন এই সরকার।

কোথায় মিলবে ফর্ম?

রূপশ্রী প্রকল্পের ফর্ম মিলবে বিভিন্ন সরকারি দফতর থেকে।

১. বিডিও অফিস

২. মহকুমা শাসকের দফতর

৩. পুর নিগমের কমিশনারের দফতর

৪. সরকারি ওয়েবসাইট

কী কী নথি লাগবে?

রূপশ্রী প্রকল্পের ফর্মের সঙ্গে জমা দিতে হবে বেশ কিছু নথি।

১. জন্ম প্রমাণপত্র বা বার্থ সার্টিফিকেটের প্রত্যয়িত প্রতিলিপি।

২. জমা দিতে হবে পাত্রের বিস্তারিত তথ্য

৩. বিয়ের কার্ড বা অন্য কোনও প্রমাণ

৪. আবেদনকারী স্বেচ্ছায় বিয়ে করছেন বলে স্বীকারোক্তি দিতে হবে

৫. ভোটার আইডি কার্ড ও আধার কার্ড

৬. ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিস্তারিত

কী ভাবে মিলবে টাকা?

সমস্ত নথি জমা দিলে তা খতিয়ে দেখবেন সরকারি আধিকারিক। সব তথ্য নির্ভুল হলে বিয়ের ঠিক ৫ দিন আগে পাত্রীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে জমা পড়বে টাকা।

সরকারি অফিসের পাশাপাশি ওয়েবসাইটেও ফর্ম  পেতে এখানে ক্লিক করুন।

বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও লিংক :

১. সরকারি গাইডলাইন

২. প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

৩. আবেদন পত্র ( সরকারি অফিস থেকে যাচাই করে নেবেন)

৪.সরকারি ওয়েবসাইট

আমাদের এই পোস্ট ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন , কিছু জানার থাকলে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করুন।